bangladesh
ads

নদী বাঁচাতে ৭,০০০ কিলোমিটার হাঁটছেন এক সাধু!

[ ctgreportbd | on September 24, 2017]

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। ভারতের নাদী বাঁচাতে এক সাধু গুরুর আপ্রাণ চেষ্টা। চুল দাড়িওয়ালা পাগলাটে ধরনের এই গুরু পুরো ভারত জুড়ে হেঁটে বেরিয়ে মানুষের মাঝে নদী রক্ষা করার সচেতনতা সৃষ্টি করছেন। এই সাধু গুরু যোগী বাসুদেবের ‘শা ফাউন্ডেশন’ নামের একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা। তার সেই ‘ইশা ফাউন্ডেশন’ এর উদ্যোগে নদীকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করার ক্যাম্পেইন চালু করা হয়। সাধু গুরু এবং ‘ইশা ফাউন্ডেশন’ তাদের সেই ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে নদীকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য জনগণের মধ্যে প্রচারণা চালান।

ভারতের নদীগুলো ক্রমান্বয়ে দূষিত হয়ে পড়ছে। পর্যাপ্ত ময়লা-আবর্জনা ফেলার কারণে নদীর পানির স্বাভাবিক প্রবাহ বন্ধ হতে চলেছে। তাই ঐ দেশের নদী বাঁচানোর এই অসাধারণ উদ্যোগটি শুরু করেছেন ভারতের এই সাধু গুরু। সেপ্টেম্বরের ৩ তারিখ থেকে তারা ভারতের ১৬ টি রাজ্যের নদীর পাড়গুলোতে গিয়ে এই ক্যাম্পেইনের প্রচারণা শুরু করেছেন। তাদের এই মহান উদ্যোগের সাথে প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে অংশ নিচ্ছেন প্রায় সাত লক্ষ মানুষ।

নদী বাঁচাতে ৭,০০০ কিলোমিটার হাঁটছেন সাধু গুরু যোগী বাসুদেব। ছবি: দ্য ন্যাশনাল থেকে সংগৃহীত। 

ভারতের ১৬টি রাজ্যসহ, হিমালয় থেকে ভারতের সমগ্র দক্ষিণ ও উত্তরের নদী অঞ্চলে প্রায় ৭,০০০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে সাধু যোগী বাসুদেব এই ক্যাম্পেইন চালাবেন বলে জানান। এই বিশাল সাহসী কর্মকাণ্ডে তাকে সমর্থন জানাচ্ছেন বিখ্যাত সব তারকা, ক্রিকেটাররাজনীতিবিদডাক্তার ইঞ্জিনিয়ারবিশেষজ্ঞ এবং সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ। ইশা ফাউন্ডেশনের এই র‍্যালিতে দেওয়া ফোন নম্বারে, তিনি আগ্রহী সবাইকে ক্যম্পেইন নিয়ে তাদের প্রতিক্রিয়া জানানোর অনুরোধ জানায়। সেই সাথে তিনি সবাইকে নিয়ে নদীর তীরে গণ হারে গাছ লাগানোর পরামর্শ দিচ্ছেন। কারন গাছই পারে পরিবেশ বাঁচতে, সেই সাথে নদীকে ভাঙ্গনের হাত থেকে গাছই রক্ষা করে।  

ভারতের সাধু যোগী বাসুদেব’র মুল উদ্দেশ্য তিনি সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাচ্ছেন, যাতে করে ভারত সরকার সেই দেশের নদীগুলোর প্রতি বিশেষ নজর দেন। কেননা প্রাণ-প্রকৃতি বাঁচাতে নদীর অস্তিত্ব রক্ষা করা অবশ্যই  অপরিহার্য। সাধু যোগী বাসুদেব বলেন, এভাবে নাদী ধ্বংস হতে থাকলে আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য এটি ভীষণ হুমকিস্বরূপ।  তাদের বেঁচে থাকতে হবে অস্বাভাবিক বিপজনক প্রাণহীন প্রকৃতির মধ্যে।

সূত্র: দ্য ন্যাশনাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *